শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০৭:৫৬ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হুঁশিয়ারিমূলক আগাম বক্তব্য সংগত নয়: মির্জা ফখরুল

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হুঁশিয়ারিমূলক আগাম বক্তব্য সংগত নয়: মির্জা ফখরুল

রায় নিয়ে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ব্যবস্থা নেবে-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর এ বক্তব্য উল্লেখ করে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, রায় ঘোষণার আগে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হুঁশিয়ারিমূলক আগাম বক্তব্য সংগত নয়। তিনি সরকারের একটি গুরুত্বপূর্ণ পদে আছেন। এ থেকে পরিষ্কার বোঝা যায়, তাঁরা কী চিন্তা করছেন?

আজ শুক্রবার বিকেলে সদ্য প্রয়াত ঔপন্যাসিক শওকত আলীর বাসায় পরিবারের সদস্যদের সমবেদনা জানানোর পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি কথা বলেন।

প্রসঙ্গত, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দুদকের দায়ের করা জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণার জন্য ৮ ফেব্রুয়ারি দিন ধার্য করেছেন আদালত।

শুক্রবার রাজধানীর ঢাকেশ্বরী মন্দিরে এক অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল এ প্রসঙ্গে বলেন, রায়কে কেন্দ্র করে বিএনপি কিংবা কেউ কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করলে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী কঠোর ব্যবস্থা নেবে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমরা এখনো রায়টি পাইনি। আইনগতভাবে রায় ঘোষণা হওয়ার আগে পর্যন্ত আমরা রায় নিয়ে প্রতিক্রিয়া, সেভাবে বলতে পারব না।

খালেদা জিয়ার মামলার রায় দ্রুততার সঙ্গে করানো হচ্ছে অভিযোগ করে মির্জা ফখরুল বলেন, নজিরবিহীন তাড়াহুড়ার মধ্যে এই মামলা শেষ করার চেষ্টা হচ্ছে। দেশনেত্রীর আইনজীবীরা পরিষ্কার করে বলেছেন যে, জাস্টিস হারিড ইজ জাস্টিস বারিড। কারণ তারা (ক্ষমতাসীন) কর্ণপাত করছেন না। তারা ডিটারমাইনড যে, তারা আগামী নির্বাচন করতে চান বিএনপিকে বাদ দিয়ে এবং সেজন্যই তাড়াহুড়া করে বিচার কাজ শেষ করা এবং এসব কমেন্ট করা। আমরা এখন পর্যন্ত কোনো কর্মসূচি ঘোষণা করিনি। তাহলে কোথায় যাবেন- প্রশ্ন রাখেন ফখরুল।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, অনেকদিন আগে থেকেই সরকারের লোকজন এই মামলা নিয়ে আগাম বক্তব্য দেয়া শুরু করেছেন। প্রধানমন্ত্রী বহু আগেই রায় দিয়ে দিয়েছেন। নিশ্চয় মনে আছে অনেক আগেই তিনি বলে দিয়েছিলেন এতিমের টাকার ব্যাপারে। অন্যান্য মন্ত্রীরা বলছেন। তারা প্রতিটি দিন, প্রতিটি মুহূর্ত, প্রতিটি ক্ষণ তারা হুমকি দিয়েছেন, তারা শক্তি প্রয়োগ করেছেন, বলপ্রয়োগ করেছেন।

শুক্রবার বিকালে বিএনপি মহাসচিব রাজধানীর টিকাটুলীর কে এম দাশ লেনের ‘বিরতি ভিলা’ বাসায় গিয়ে প্রয়াত ঔপন্যাসিক শওকত আলীর পরিবারের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে তার স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। তিনি তার জ্যেষ্ঠ ছেলে আসিফ শওকত কল্লোল, তার স্ত্রী ফারজানা আফরোজ পারুলসহ আত্বীয়-স্বজনের সঙ্গে কথা বলেন। তাদের খোঁজ-খবর নেন। যে কক্ষে শওকত আলী থাকতেন সেখানে গিয়ে কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে তার স্মৃতির প্রতি সন্মান জানান মির্জা ফখরুল।

ভালো লাগলে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2011 VisionBangla24.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com