শুক্রবার, ২১ Jun ২০২৪, ০৯:২১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বেনজীর দোষী সাব্যস্ত হলে দেশে ফিরতেই হবে: কাদের কথা, কবিতা,সংগীত ও নৃত্যে রবীন্দ্র -নজরুল জয়ন্তী ১৪৩১ উদযাপন ডেঙ্গু : মে মাসে ১১ জনের মৃত্যু, হাসপাতালে ৬৪৪ প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব হতে পারে আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতা ফখরুল ইসলাম প্রিন্স নওগাঁর মান্দায় নিয়ম-বহির্ভূত রেজুলেশন ছাড়াই উপজেলার একটি প্রাথমিক স্কুলের টিন বিক্রির অভিযোগ আর্তনাদ করা সেই পরিবারের পাসে IGNITE THE NATION ঘূর্ণিঝড় রেমালের তান্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত শরণখোলা ও সুন্দরবন নওগাঁর শৈলগাছী ইউনিয়ন পরিষদের ২০২০০৪-২০২৫ অর্থবছরের উন্মুক্ত বাজেট ঘোষণা নরসিংদী মেহেরপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানকে কুপিয়ে হত্যা কালাইয়ে সহিদুল হত্যা মামলায় দশজনের যাবজ্জীবন
নীলফামারীতে কৃষক নেমেছে বোরো আবাদে

নীলফামারীতে কৃষক নেমেছে বোরো আবাদে

মাঘের শুরুতে বোরো আবাদের মাঠে নেমেছেন জেলার কৃষক। শীত উপেক্ষা করে শুরু করেছে জমিতে চারা রোপন, আবার অনেকে ব্যস্ত জমি তৈরির কাজে।

কৃষকরা বলছেন, মাঘের শুরুতেই চারা রোপন করতে পারলে ভালো ফলন পাওয়া যায়। কৃষি বিভাগও জানায়, এ সময়ে চারা রোপন করলে রোগবালাই কম হয়, প্রাকৃতিক দূর্যোগে আক্রান্তের সম্ভাবনা থাকে না।

এসময় জেলার জলঢাকা উপজেলার আউলিয়াখানা গ্রামের কৃষক অলিয়ার রহমান (৫০) বলেন,‘এক সপ্তাহ আগে আমার জমিতে চারা রোপন করেছি। এতে ক্ষেতে রোগবালাই কম হবে, ফলন ভালো হবে, জমিতে বর্ষার পানি জমার আগেই ধান উঠানো সম্ভব হবে।’

জেলার ডিমলা উপজেলার খালিশা চাপানী ইউনিয়নের বাইশপুকুর গ্রামের কৃষক অধীর চন্দ্র রায় (৪০) বলেন, ‘দুই একদিনের মধ্যে চারা রোপন করবো। মাঘের শুরুতে চারা রোপন করলে ফলন ভালো পাওয়া যায়।’

ডোমার উপজেলার বামুনিয়া ইউনিয়ের মৌজা বামুনিয়া গ্রামের কৃষক রফিকুল ইসলাম (৫৫) বলেন,‘মাঘমাস পড়েছে, এলাকার অনেকে চারা লাগানো শুরু করেছেন। আমিও দুই একদিনের মধ্যে মধ্যে চারা লাগানো শুরু করবো।’

বোরো মৌসুমে ভিত্তি বীজ উৎপাদনের লক্ষ্যে কাজ শুরু করেছে নীলফামারী ভিত্তি বীজ উৎপাদন খামার। ওই খামারের উপসহকারী পরিচালক মফিজুর রহমান বলেন,‘এটাই উপযুক্ত সময় জমিতে বোরো চারা রোপনের। অপেক্ষাকৃত নীচু জমিতে এ সময়ে চারা রোপন করা হলে জমিতে বৃষ্টির পানি জমার আগেই ধান উঠানো সম্ভব হবে। রোগবালাই কম হবে, ফলনও ভালো হবে।’

কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগ সূত্র জানায়, জেলায় এবার বোরো ধান আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা রয়েছে ৮৪ হাজার ২৭৯ হেক্টর জমিতে। এজন্য বীজতলা তৈরী হয়েছে চার হাজার ৯৭০ হেক্টর। বেশীরভাগ বীজতলার চারা জমিতে রোপনের উপযুক্ত সময়ে পৌঁচেছে, ইতিমধ্যে কৃষকরা জমিতে রোপনও শুরু করেছেন। জেলায় বেশীরভাগ বীজতলার বয়স ৩০ থেকে ৪০ দিনের মধ্যে হওয়ায় শৈত প্রবাহের বিরূপ প্রভাব পড়েনি।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপপরিচালক মো. আবুল কাশেম আযাদ জানান, ‘জেলায় এ পর্যন্ত ১০৩ হেক্টর জমিতে বোরো ধানের চারা রোপন হয়েছে। এসময়ে চারা রোপনের ফলে আবাদে রোগবালাই কম হবে, প্রাকৃতিক দূর্যোগে পড়বে না, ফলনও ভালো হবে।’

ভালো লাগলে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2011 VisionBangla24.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com