শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০৮:৪০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কৃষিভিত্তিক রোবট ও ড্রোন তৈরী করে আন্তর্জাতিক সম্মাননা পেল হাই স্কুলের রোবোটিক্স দল

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কৃষিভিত্তিক রোবট ও ড্রোন তৈরী করে আন্তর্জাতিক সম্মাননা পেল হাই স্কুলের রোবোটিক্স দল

রিফাত আন নাবিল ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিবেদন:  রোবোটিক্স চর্চায় অসামান্য অবদান রেখেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলার একটি বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। আশুগঞ্জ তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয়ের কিশোর এই রোবোটিক্স দলটি দেশের গন্ডি পেরিয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও সফলতার স্বাক্ষর রেখেছে। সম্প্রতি মালয়েশিয়ায় অনুষ্ঠিত বিশ্ব উদ্ভাবন প্রতিযোগিতা ও প্রদর্শনীতে তাদের নির্মিত কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন কৃষিভিত্তিক রোবট ও হেক্সাকপ্টার ড্রোন প্রদর্শন করে জিতেছে প্রথম পুরস্কারসহ স্বর্ণপদক।

২০১৭ সাল থেকেই আশুগঞ্জ তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগের ল্যাবে শিক্ষক মঈন উদ্দিনের সহায়তায় রোবট ও রোবোটিকস সম্পর্কে জানতে শুরু করে শিক্ষার্থীরা । ২০২১ সালে রোবোটিকস চর্চার জন্য ‘ড্রিমস অব বাংলাদেশ’নামে একটি দল গঠন করে উক্ত বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মাহদির ও তার সহপাঠীরা । এরপর বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে উপজেলা ও জেলা পর্যায়ে অনুষ্ঠিত বিজ্ঞান মেলা থেকে আসতে থাকে পুরস্কার। পরের বছরই নটর ডেম কলেজের সায়েন্স ক্লাব আয়োজিত ‘নটর ডেম অ্যানুয়াল সায়েন্স ফেস্টিভ্যাল’ প্রতিযোগিতায় ছয়টি দেশের মধ্যে ‘প্রজেক্ট ডিসপ্লে’বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হয় ‘ড্রিমস অব বাংলাদেশ’। সম্প্রতি মালয়েশিয়ায় (২২ সেপ্টেম্বর থেকে ২৬ সেপ্টেম্বর) ৫ম বিশ্ব উদ্ভাবন প্রতিযোগীতা ও প্রদর্শনীতে অনুষ্ঠিত হয়। এতে অংশ নেয় আশুগঞ্জ তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র উচ্চবিদ্যালয়ের বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের নিয়ে মাহদিরের নেতৃত্বে একটি দল। যুক্তরাষ্ট্র সহ ১৯টি দেশের ৪০৯টি দলের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে তাদের তৈরি কৃষিভিত্তিক রোবট ও হেক্সাকপ্টার ড্রোন জিতেছে প্রথম পুরস্কারসহ স্বর্ণপদক। এতে একদিকে যেমন বিদেশের মাটিতে দেশের মর্যাদাকে বৃদ্বি করে, তেমনি আধুনিক বিজ্ঞান ব্যবস্থায় আগামী দিনে তারা আরো নতুন কিছু আবিষ্কার করার অনুপ্রেরণা যোগাবে। এ ছাড়া অত্র বিদ্যালয়ের শিক্ষক মঈন উদ্দিন পেয়েছেন সেরা তত্বাবধায়কের পুরস্কার। টিমের সদস্যরা জানান তাদের তৈরী রোবট মাটির প্রকৃতি বুঝে বীজ বপন করতে পারে। জমিতে সেচ দেওয়া, উপযুক্ত ও অনুপযুক্ত মাটি শনাক্ত করা, এসবও করতে সক্ষম। এ ছাড়া হেক্সাকপ্টার (কৃষি ড্রোন) ফসল ও পশুসম্পদ পর্যবেক্ষণে সক্ষম। বাংলাদেশী পণ্য দিয়ে তৈরী করে তা বাজারজাত করার পরিকল্পনার কথা জানালেন কিশোর আবিষ্কারকরা।

শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞান মনস্ক করে গড়ে তুলতে একাধিক টিম গঠনের কথা জানান বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইয়াকুব ভূইয়া। কিশোর আবিষ্কারকদের সফলতা প্রসঙ্গে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক মো: শাহগীর আলম জানান রোবোটিক্স নিয়ে জেলা প্রশাসনের তত্বাবধানে ক্লাব বা সেল গঠনের পরিকল্পনার কথা। নতুন নতুন উদ্ভাবনের মাধ্যমে প্রযুক্তি খাতে এগিয়ে যাবে দেশ এমনটাই প্রত্যাশা সংশ্লিষ্টদের।

 

ভালো লাগলে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2011 VisionBangla24.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com