বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ০২:৪৪ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
নওগাঁর মান্দায় নিয়ম-বহির্ভূত রেজুলেশন ছাড়াই উপজেলার একটি প্রাথমিক স্কুলের টিন বিক্রির অভিযোগ আর্তনাদ করা সেই পরিবারের পাসে IGNITE THE NATION ঘূর্ণিঝড় রেমালের তান্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত শরণখোলা ও সুন্দরবন নওগাঁর শৈলগাছী ইউনিয়ন পরিষদের ২০২০০৪-২০২৫ অর্থবছরের উন্মুক্ত বাজেট ঘোষণা নরসিংদী মেহেরপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানকে কুপিয়ে হত্যা কালাইয়ে সহিদুল হত্যা মামলায় দশজনের যাবজ্জীবন আশুলিয়ায় ভুয়া ডিবি পুলিশ পরিচয় দানকারীকে আটক করেছে আশুলিয়া থানা পুলিশ আকাশে মেঘ জমলেই থাকছে না বিদ্যুৎ, অতিষ্ঠ গ্রাহকরা কোটচাঁদপরে বৃদ্ধের আয়ের উৎস মুদি দোকান পুড়ে ছাই সেপটিক ট্যাংক থেকে এমপি আনারের মরদেহের ‘খণ্ডিত অংশ’ উদ্ধার
ঢাবিতে দু’দিনব্যাপী সংগীত উৎসব

ঢাবিতে দু’দিনব্যাপী সংগীত উৎসব

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) সংগীত বিভাগের উদ্যোগে ২৬ ও ২৭ জানুয়ারী দু’দিনব্যাপী সংগীত উৎসব শুরু হয়েছে। “বাংলা গান” এ প্রতিপাদ্য নিয়ে শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৪টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মলচত্ত্বরে এক বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানে ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান প্রধান অতিথি হিসেবে এ উৎসবের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

 

সংগীত বিভাগের চেয়ারপার্সন ড. মহসিনা আক্তার খানমের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন অর রশীদ, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ.এইচ.এম মোস্তাফিজুর রহমান, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ এবং শান্ত-মারিয়াম ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি’র উপাচার্য অধ্যাপক ড. কাজী মো. মফিজুর রহমান, রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশ-এর উপাচার্য অধ্যাপক ড. বিশ্বজিৎ ঘোষ, এমেরিটাস অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

 

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক আখতারুজ্জামান ঘরে ঘরে সংস্কৃতি চর্চার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন, শিশুদের সংস্কৃতি বিষয়ে আগ্রহী করে তোলার ক্ষেত্রে অভিভাবকদের যথাযথ দায়িত্ব পালন করতে হবে। সেই সাথে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে সাংস্কৃতিক চর্চা বাড়াতে হবে।

 

তিনি আরো বলেন, জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করার ক্ষেত্রে সংগীত অত্যন্ত শক্তিশালী মাধ্যম। ১৯৭১ সালে যুক্তরাষ্ট্রে আয়োজিত জর্জ হ্যারিসনের কনসার্ট-এর প্রসঙ্গ উল্লেখ করে তিনি বলেন, ওই কনসার্টের মাধ্যমেই মহান মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে বিশ্ব জনমত গড়ে উঠেছিল। বাংলা ভাষার সম্মান ও মর্যাদা রক্ষায় নিজ নিজ অবস্থান থেকে কাজ করার জন্য তিনি সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

 

অনুষ্ঠানের সভাপতি সংগীতশিল্পী ড. লীনা তাপসী খান তাঁর বক্তব্যে বলেন, এটি আমাদের প্রাণের উৎসব। সংগীত উৎসব প্রতি বছর আমাদের মিলনমেলা। বেশ আয়োজন করে আমরা এই আয়োজন করে থাকি। প্রতিবারই চেষ্টা থাকে বিগত সময়ের চেয়ে আরও সুন্দর করে গুছিয়ে উৎসব আয়োজন করার। এবারও সেই চেষ্টার ধারাবাহিকতা থাকছে।

 

সংগীত বিভাগের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের পরিবেশনায় দু’দিন জুড়ে থাকছে মূলধারার বাংলা গান। এতে থাকছে উচ্চাঙ্গ, নজরুল, রবীন্দ্র, লোক ও যন্ত্রসংগীতের মনোমুগ্ধ পরিবেশনা। আরও থাকছে আধুনিক ও চলচ্চিত্রের গান।

 

সংগীত উৎসবের প্রথম দিন অতিথি শিল্পী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সুবীর নন্দী ও খুরশীদ আলম। আর ২য় দিন থাকছে রফিকুল আলম ও আবিদা সুলতানার পরিবেশনা। দু’দিনই বিকাল ৪টা থেকে অনুষ্ঠান চলবে রাত ৮টা পর্যন্ত।

 

সংগীতের এ উৎসবে সংগীত বিভাগ থেকে নয় জন দেশবরেণ্য গুণীজনকে তাঁদের কর্মের স্বীকৃতিস্বরূপ সম্মাননা প্রদান করা হয়েছে। তাঁরা হলেন কণ্ঠশিল্পী সুবীর নন্দী, রফিকুল আলম এবং আবিদা সুলতানা, গীতিকার কবি জাহিদুল হক, সুরকার সেলিম আশরাফ, গীতিকার ও সুরকার অনুপ ভট্টাচার্য, যন্ত্র শিল্পী ফিরোজ খান এবং মনিরুজ্জমান।

ভালো লাগলে নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2011 VisionBangla24.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com