সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ১১:৩২ পূর্বাহ্ন

ব্রাভোর বীরত্বে চেন্নাইয়ের জয়

ব্রাভোর বীরত্বে চেন্নাইয়ের জয়

ভিশন বাংলা ডেস্ক: দুই বছরের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) ফিরেছে চেন্নাই সুপার কিংস। ফিরেই উদ্বোধনী ম্যাচে তারা মুখোমুখি ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের। তারা চেন্নাইয়ের সামনে রাখে ১৬৬ রানের চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য। তবে ইতিহাস যে কথা বলে না মুম্বাইয়ের হয়ে। এর আগের ৫ উদ্বোধনী ম্যাচের কোনটিতেই জিততে পারে নি সর্বোচ্চ তিনবারের আইপিএল চ্যাম্পিয়ন এই দলটি। তাই মোস্তাফিজুর রহমান-জসপ্রিত বুমরাহের মত বোলারদের প্রচেষ্টা সত্ত্বেও চেন্নাইয়ের ক্যারিবিয় তারকা ডোয়াইন ব্রাভোর ঝড়ে শেষ পর্যন্ত রোমাঞ্চকর ম্যাচটি ১ বল ও ১ উইকেট হাতে রেখে জিতে নেয় চেন্নাই।

এদিন টস জিতে বল করার সিদ্ধান্ত নেন চেন্নাই অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। মাত্র ২০ রানে দুই উইকেট তুলে নিয়ে মুম্বাইকে চাপে ফেলে দেন চেন্নাইয়ের বোলাররা। তবে ইশান কিষান ও সূর্যকুমার যাদব ৫২ বলে ৭৮ রানের দারুণ জুটি গড়ে চাপ সামাল দেন। ৪৩ রান করে সূর্যকুমার বিদায় নেয়। দলীয় ১১৩ রানে চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে সাজঘরে ফেরেন ইশানও। তার ব্যক্তিগত সংগ্রহ ছিল ৪০ রান।

এরপর পান্ডিয়া ব্রাদার্স- হার্দিক ও ক্রুনাল মিলে আর কোন উইকেট পড়তে না দিয়ে দলকে ১৬৫ রানের সংগ্রহ এনে দেন। ক্রুনাল ২২ বলে ৫ চার ও ২ ছয়ে ৪১ রানে অপরাজিত থাকেন। হার্দিক অপরাজিত থাকেন ২২ রানে। চেন্নাই অল রাউন্ডার শেন ওয়াটসন ২৯ রন খরচায় ২ উইকেট পান।

 ব্যাট করতে নেমে চেন্নাইয়ের শুরুটাও ভালো হয়নি। ৭৫ রানেই দলটি হারিয়ে ফেলে ৫ উইকেট। এরপর মাঠে নামেন ব্রাভো। একপ্রান্তে নিয়মিত বিউরতিতে উইকেট পড়তে থাকলেও তিনি অন্যপ্রান্তে তার তান্ডব চালিয়ে যান। ১১৮ রানে অষ্টম উইকেট পতনের পর তিনি ইমরান তাহিরকে নিয়ে গড়েন ৪১ রানের জুটি, যেখানে তাহিরের অবদান মাত্র ২ রান। এই জুটিই জয়ের কাছাকাছি নিয়ে যায় চেন্নাইকে।

১৯তম ওভারের শেষ বলে দলীয় ১৫৯ রানে যখন ব্রাভো নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে সাজঘরে ফেরেন তখন জয়ের জন্য চেন্নাইয়ের প্রয়োজন ৭ রান। শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে নামেন কেদার যাদব, যিনি হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে আগে একবার নেমেও মাঠ ছেড়েছিলেন। শেষ ওভারে বল করতে আসেন কাটার মাস্টার মোস্তাফিজ। প্রথম তিন বলে তিনি যাদবকে কোন রান নিতে দেননি। তবে চতুর্থ বলে একটি চার ও পঞ্চম বলে একটি ছয় হাঁকিয়ে চেন্নাইকে তিনি পৌঁছে দেন ১৬৯ রানে। ১ বল ও ১ উইকেট হাতে রেখে জয় পায় দলটি। যাদব অপরাজিত থাকেন ২৪ রানে। এদিন মোস্তাফিজ ৩.৫ ওভার বল করে ১ উইকেট পেলেও ৩৯ রান দিয়েছেন। হার্দিক ও মায়ানক মারকান্দে দুজনেই শিকার করেছেন ৩ টি করে উইকেট। তবে ৩০ বলে ৭টি ছয় ও ৩টি চারে সাজানো ৬৮ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে দলের জয় নিশ্চিত করায় ম্যাচ সেরার পুরস্কার পেয়েছেন ব্রাভো।

 সংক্ষিপ্ত স্কোর-

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স : ১৬৫/৪ (২০ ওভার) (রোহিত ১৫, লুইস ০, ইশান ৪০, সূর্যকুমার ৪৩, হার্দিক ২২*, ক্রুনাল ৪১*; চাহার ১/১৪, ওয়াটসন ২/২৯, হরভজন ০/১৪, জাদেজা ০/৯, উড ০/৪৯, তাহির ১/২৩, ব্রাভো ০/২৫)।

চেন্নাই সুপার কিংস : ১৬৯/৯ (১৯.৫ ওভার) (ওয়াটসন ১৬, রাইডু ২২, রায়না ৪, যাদব ২৪*, ধোনি ৫, জাদেজা ১২, ব্রাভো ৬৮, চাহার ০, হরভজন ৮, উড ১, তাহির ২*; ম্যাকক্লেনাঘন ১/৪৪, মোস্তাফিজ ১/৩৯, বুমরাহ ১/৩৭, হার্দিক ৩/২৪, মারকান্দে ৩/২৩)।

ফলাফল : চেন্নাই সুপার কিংস ১ উইকেটে জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ : ডোয়াইন ব্রাভো।

ভালো লাগলে নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2014 VisionBangla24.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com